নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর:
নাটোর জেলার প্রায় আড়াই লাখ শিশুকে আগামী ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যে নাটোরে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে জেলা পর্যায়ে কর্মরত সাংবাদিকদের জন্যে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডাঃ কাজী মিজানুর রহমান বলেন, ভিটামিন ‘এ’ গ্রহন করা হলে শিশুদের স্বাভাবিক বৃদ্ধি নিশ্চিত হওয়ার পাশাপাশি দৃষ্টিশক্তি স্বাভাবিক থাকে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। চলমান কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঝুঁকির প্রবণতা থেকে শিশুকে রক্ষা করতে আসন্ন ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

ইপিআই কেন্দ্রগুলোতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঝুঁকি মোকাবেলায় যথাযথ স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করা হবে বলে উল্লেখ করে সিভিল সার্জন বলেন, এ লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় জীবানুনাশক উপকরণ কেন্দ্রগুলোতে প্রদান করা হবে। দায়িত্ব পালনকারী স্বাস্থ্য কর্মী এবং স্বেচ্ছাসেবকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তাদের দায়িত্বে নিয়োজিত করা হবে।

ইপিআই সুপারিনটেনডেন্ট শতদল সাহা সভা প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। পাওয়ার পয়েন্টে ভিটামিন এ ক্যাপসুল গ্রহনের সুবিধা এবং বাস্তবায়ন কৌশল নিয়ে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন মেডিকেল অফিসার মোহাম্মদ রাসেল।

কর্মশালায় জানানো হয়, আগামী ৪ অক্টোবর থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত সময়ে জেলার মোট দুই লাখ ৪৫ হাজার ৮২২ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এরমধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ২৬ হাজার ৭৩৭ শিশুকে নীল রঙের ক্যাপসুল এবং দুই লাখ ১৯ হাজার ৮৫ শিশুকে লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। জেলার এক হাজার ৩৮৮টি কেন্দ্রে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.