ইতালি।। নিজস্ব প্রতিনিধি:

পরীক্ষার হলে শরীরের চামড়া বা টুকরো কাগজ এমন কি ইলেকট্রনিক হেডফোন ডিভাইসের মাধ্যমে নকল করার ঘটনা কমবেশি সবারই জানা।
এবার এর ব্যতিক্রম ঘটনা ঘটলো ইতালিতে। ইতালির বোলোনিয়া শহরে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর পরীক্ষার হলে নকল করার অভিযোগে নাইজেরিয়ান শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার ও জরিমানা করা হয়েছে।
পরীক্ষা চলমান অবস্থায় দায়িত্বরত শিক্ষক সেই শিক্ষার্থীকে সন্দেহ হলে তার মাক্স পরীক্ষা করে পরবর্তীতে দেখা যায়,সেই মাক্সের ভিতরে ক্ষুদ্রাকৃতির একটি গোপন ক্যামেরা ডিভাইস রয়েছে।

বলোনিয়া টুডে পত্রিকা জানায়,সেই শিক্ষার্থী করোনাভাইরাস এর সুরক্ষাকারী মাক্স এর ভেতর একটি ক্ষুদ্রাকৃতির গোপন ক্যামেরা ডিভাইস লুকিয়ে নিয়ে যায়।এবং মাস্কের সম্মুখভাগে ছোট ক্ষুদ্র আকৃতির একটি ছিদ্রের সাথে ক্যামেরা স্থাপন করা হয়।যাতে মনিটরে ভেসে ওঠা প্রশ্নের উত্তর মোবাইল ডিভাইসের মাধ্যমে সে হলের বাইরে থাকা তার বন্ধুর কাছে পাঠাতে পারে।

পরবর্তীতে তার বন্ধু তার কাছে উত্তর পাঠাতো। যদি তার সেল ফোন একবার কম্পন সৃষ্টি করত তাহলে সেই প্রশ্নের উত্তর “সত্যি” আর যদি দুইবার কম্পন সৃষ্টি করত তাহলে সেটা “মিথ্যে”।
ধরা পড়ার পর পরবর্তীতে জালিয়াতি ও নকল করার অভিযোগে তাকে বহিষ্কার ও নিন্দা জানানো হয়।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.