ইতালির নতুন প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি, যিনি সুপার মারিও নামে খ্যাত। তিনি ইতালির কেন্দ্রীয় ব্যাংক এর সাবেক গভর্নর এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন এর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক প্রেসিডেন্ট।

ইতালি II আলামিন সিকদার ইরাজ, স্টাফ রিপোর্টার:

মারিও দ্রাঘি একাধারে একজন অর্থনীতিবিদ, ব্যাংকার এবং একাডেমিক এক্সিকিউট হিসেবে পরিচিত।

চলুন জেনে নেয়া যাক তার সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত খুঁটিনাটি:

পুরো নাম মারিও রবের্তো দ্রাঘি। তিনি ৩রা সেপ্টেম্বর ১৯৪৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন। উচ্চবিত্ত পরিবারে তাঁর বেড়ে উঠা। বাবা ইতালির কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ চাকুরী করতেন এবং মা ছিলেন ফার্মাসিস্ট।

তিনি মাসিমিলিয়ানো মাসিমো ইনস্টিউট পড়াশোনা করেছেন। পরবর্তীতে ইতালির নামকরা ইউনিভার্সিটি লা-সাপিয়েন্সা থেকে অর্থনীতিতে গ্র‍্যাজুয়েশন শেষ করেছেন।

তারপরে তিনি ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি থেকে অর্থনীতিতে পিএইচডি অর্জন করেছেন।

১৯৮১ সালে রাষ্ট্রবিজ্ঞানের প্রফেসর হিসেবে তিনি ইউনিভার্সিটি অফ ফ্লোরেন্স এ যোগদান করেন। ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত সেখানে ছিলেন।

এরপর ২০০১ সালে
তিনি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের জন এফ কেনেডি স্কুল অফ গভর্নমেন্টের রাজনীতি ইনস্টিটিউট- এ ফেলো করেন।

১৯৮৪ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত তিনি বিশ্ব ব্যাংকের ইতালিয়ান নির্বাহী পরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯১ সালে তৎকালীন মন্ত্রী গিডো কার্লির উদ্যোগে তিনি ট্রেজারির সাধারণ পরিচালক হন এবং ২০০১ অবধি এই পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।

ট্রেজাররিতে তাঁর সময় তিনি সেই কমিটির সভাপতিত্ব করেন যা ইতালীয় কর্পোরেট, আর্থিক আইন সংশোধন করে এবং ইতালীয় আর্থিক বাজার পরিচালিত আইনটির খসড়া তৈরি করে। তিনি বেশ কয়েকটি ব্যাংক এবং কর্পোরেশনের সাবেক বোর্ড সদস্য।

ব্যাংক অফ ইটালির গভর্নর হিসাবে তাঁর দক্ষতায় তিনি ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নিং, জেনারেল কাউন্সিলের সদস্য এবং আন্তর্জাতিক বন্দোবস্তের ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ছিলেন।

তিনি পুনর্গঠন ও উন্নয়ন সম্পর্কিত আন্তর্জাতিক ব্যাংক এবং এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের বোর্ডের গভর্নরগুলিতে ইতালির প্রতিনিধিত্ব করেন।

২০০০ সালের ডিসেম্বরে, দ্রাঘি ইতালি ব্যাঙ্কের গভর্নর নিযুক্ত হন। তবে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ১ জানুয়ারী ২০০৬ এ যোগদান করেছিলেন।

২০০০সালের এপ্রিল মাসে তিনি আর্থিক স্থিতিশীলতা ফোরামের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এই সংস্থাটি জি -২০ এর পক্ষে ২০০৯ সালের এপ্রিল মাসে আর্থিক স্থিতিশীলতা বোর্ডে পরিণত হয়।

সরকার, কেন্দ্রীয় ব্যাংক, জাতীয় তদারককারী সংস্থা ও আর্থিক বাজার, আন্তর্জাতিক আর্থিক সংস্থাগুলি, নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষের আন্তর্জাতিক সমিতি এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিশেষজ্ঞদের তদারকি ও কমিটির প্রতিনিধিদের একত্রিত করে।

এর লক্ষ্য আন্তর্জাতিক আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা, বাজারের কার্যকারিতা উন্নতি এবং তদারককারীদের মধ্যে তথ্য বিনিময় এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতার মাধ্যমে পদ্ধতিগত ঝুঁকি হ্রাস করা।

পরবর্তীতে ১লা নভেম্বর ২০১১সাল থেকে ৩১শে অক্টোবর ২০১৯ সাল পর্যন্ত দক্ষ হাতে ইউরোপীয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

অবশেষে, মারিও দ্রাঘি ইতালির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।

আশা করা যাচ্ছে, তার হাত ধরে করোনা ভাইরাসের কারণে অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত ইতালি সুগঠিতভাবে এগিয়ে যাবে।

অর্থনৈতিক ও অভ্যন্তরীণ উন্নয়নে তিনি গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনার মাধ্যমে ইতালির অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করে তুলবেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.