কবিতা | কুলাঙ্গার ছেলে | শাহারা খান
কিছু কথা লিখতে গেলে
থেমে যায় আমার কলম
কুলাঙ্গার কিছু ছেলের আচরণে
পাই নিজ বুকে জখম।

যে বাবা করলো সব বিসর্জন
সন্তানের সুখের তরে
মা মরতেই অসুস্হ বাবাকে
ঘর থেকে দিলো বের করে।

বৃদ্ধ বাবা আর্বজনা হয়েছে
কে করবে সেবা তার?
শশুরের কথা ইনিয়ে বলে
বউ স্বামীর কান করে ভার।

ভেবে দেখে ছেলে সত্যিই তো
আসলেই এভাবে চলা দায়
গাড়ি আনিয়ে বলে বাবাকে
চলে যাও যেদিকে দু’চোখ যায়।

একেতো অসুখ টাকাও নেই সাথে
সব খুয়িছেন সন্তানের পিছে
কেঁদে কেঁদে উঠলেন অভাগা
দূর সম্পর্কের আত্মীয়ের কাছে।

সব থেকেও হলেন সম্বলহীন
আশ্রিতা আত্মীয়ের বাসায়
যতনে গড়া সুখের সংসার
আজ বিফলে গেলো হায়।

সব ব্যথা যায়না বলা
বিবেকের তাড়নায় ধুঁকে ধুঁকে মরেন
তিনিও একদিন বউয়ের কথায়
বাবাকে ঘরের বাহির করেন।

বিধাতা নিলেন সেই প্রতিশোধ
আপন পুত্রের হাতে
আমায় দেখে শিক্ষা নেও সবে
করো না এমন কাজ জন্মদাতার সাথে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.