সৈয়দা ইয়াসমীন, সম্পাদনা ডেস্ক:
বৈশ্বিক মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত ইউরোপীয় দেশগুলির মধ্যে সর্বোচ্চ ক্ষতিগ্রস্থ দেশ ইতালি কভিড-১৯ এর করাল গ্রাস থেকে মুক্তি পেতে আশাবাদী। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো ইতালিতেও চলছে টিকাদান কর্মসসূচীর পূর্ব প্রস্তুতি। চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে এই কর্মসূচি এবং আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশের প্রত্যেক নাগরিকের কাছে টিকা পৌঁছাতে পারবে বলে ইতালীয় সরকার আশাবাদী।

ভ্যাকসিন বিতরণ করার জন্য ইতালি তার শৈল্পিক স্কোয়ারগুলিতে প্রিম্রোস আকারের মণ্ডপ (প‍্যাভিলিওন) স্থাপনের পরিকল্পনা করছে, যার নকশাটি হবে একটি সম্পূর্ণ ফুলের আকৃতিতে। এর বাইরে তথ‍্য প্রচারের জন‍্যও ব‍্যবস্থা থাকবে এবং সেটাও হবে ফুলের আকৃতিতে। এর ডিজাইন করেছেন মিলানের ভার্টিকাল ফরেস্ট স্কাইস্ক্রেপার এর বিখ্যাত স্থপতি স্তেফানো বোয়েরি। তিনি বিনামূল‍্যে এর নকশাটি করেছেন। বোয়েরী টুইটারে নকশার অনেকগুলো ছবি আপলোড করেছেন।

মণ্ডপের নকশা

এ ব‍্যাপারে স্থপতি বোয়েরী বলেন, মণ্ডপগুলি সৌর শক্তি দিয়ে চালিত হবে এবং কাঠ ও ফ্যাব্রিক্সের মতো পুনর্ব্যবহারযোগ্য উপকরণ দিয়ে নির্মিত হবে। তাই এগুলোকে পৃথক স্থানে ভেঙে ফেলা এবং পুনর্নির্মাণ করা সহজ হবে। প্রচারের প্রতীক হিসাবে তাঁরা ফুলকে বেছে নিয়েছেন, যা বসন্তের আগমণী বার্তা বহন করে। এর স্লোগান হচ্ছে “L’Italia rinasce con un fiore” (“একটি ফুলের সাথে ইতালির পুনর্জন্ম”)

কভিড-১৯ জরুরী বিভাগের কমিশনার দোমেনিকো আর্কুরি জানিয়েছেন, ইতালি জানুয়ারীর মাঝামাঝি সময়ে ১.৮ মিলিয়ন ডোজ টিকা জরুরী ও স্বাস্থ‍্য বিভাগের কর্মীদের এবং সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা নাগরিকদের (বয়স্কদের) মধ‍্যে প্রয়োগ করবে এবং আগামী সেপ্টেম্বরের মধ‍্যে দেশের সকল নাগরিকের মধ‍্যে টিকা বিতরণ করতে সক্ষম হবে বলে আশাবাদী।

তার আগে, ইউরোপীয় দেশগুলি সারা ইউরোপজুড়ে টিকা প্রচারে প্রতীকীর যৌথ সূচনার জন্য একটি দিন বেছে নেবে বলে আশা করা হচ্ছে। আর্কুরি আজ রবিবার (১৩ ডিসেম্বর)একটি সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ‍্য জানিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, শুরুর দিকে ইতালিতে প্রায় ৩০০টি বিতরণ সাইট থাকবে এবং পরবর্তীতে এর সংখ‍্যা বাড়িয়ে তা ১,৫০০ তে যাবে। “অভিযান শুরুর সময় আমরা কয়েকটি মণ্ডপ (প‍্যাভিলিওন) তৈরি করবো।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.