শাহরিয়ার রহমান , বিশেষ প্রতিনিধি:

২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ হিসেবে “কাতার” সু্যোগ পাওয়ার পর দক্ষিণ এশিয়ার পাকিস্তান, নেপাল, ভারত, বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কা থেকে বিপুল সংখ্যক শ্রমিক নেয় দেশটি।

বহিরাগত এসব শ্রমিকদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন।এই বিষয়ে ইংলিশ পত্রিকা “দ্যা গার্ডিয়ান ” এর এক বিশেষ প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

আয়োজক দেশ হিসেবে সুযোগ পাওয়ার পর এর প্রস্তুতি গ্রহণের সময় ৬৫০০ এরও বেশি অভিবাসী শ্রমিক কাতারে মারা গেছেন।সরকারী উৎস থেকে সংগৃহীত তথ্যানুসারে,ডিসেম্বর,২০১০ রাতের পর থেকে ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা এই পাঁচটি দক্ষিণ এশীয় দেশগুলির গড়ে প্রায় ১২ জন অভিবাসী শ্রমিক প্রতি সপ্তাহে মারা গেছেন।

পাকিস্তান ব্যতীত অন্য চারটি দেশগুলোর সরকারি তথ্যানুযায়ী, ২০১১-২০২০ পর্যন্ত ৫৯২৭ জন অভিবাসী শ্রমিক মৃত্যু বরণ করেছেন। তন্মধ্যে বাংলাদেশী শ্রমিকের মৃতের সংখ্যা ১০১৮।কাতারে অবস্থিত পাকিস্তানি দূতাবাসের তথ্যানুযায়ী, এই সময় পাকিস্তানি শ্রমিকদের মৃতের সংখ্যা ৮২৪ জন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.