দুজনে মিলে মিশে
প্রেমেরই পদাবলী
এ হৃদয় ছুঁয়ে দিয়ে
হলি তুই বাউল কবি ।

আমাদের আকাশ জুড়ে
ছিল এক স্বপ্ন রাখা
তুই আমি দু’জন মিলে
মেলে দিই চারটি পাখা ।

আমাদের সবুজ গ্রামে
পথ এক সেই যে বাঁকা
নদী ছিল মায়ের মত
শিল্পীর তুলিতে আঁকা ।

সেখানে চাঁদের কাছে
ছিল যে বটের ছায়া
ওখানেই মেঘ জমিয়ে
গড়বো ঘরের কায়া ।

ওখানেই মুক্তসভা
মিলেমিশে বসবো গানে
ফাল্গুনী পূর্ণিমাকে
রাঙাবো হলির টানে।

গাছেতে দোলনা করে
দুলবো সারা দুপুর
খুশিতে উঠবে গেয়ে
কিশোরী সেই যে নুপূর ।

জল থৈ থৈ পুকুর ঘাটে
কানা বক সারি সারি
আমরা সুজন কূজন
এই ভাব এই যে আড়ি।

চাইলে দিতেই পারে
পরম এক কনকচূড়া
পোশাকে অলংকারে
হবো এক সালংকারা ।

হাতেতে হাতটি রেখে
জুড়লে হৃদয় দুটি
জ‍্যোৎস্না হাসে মঞ্জুভাষে
ফুল যে ওঠে ফুটি।

দুজনে ভালোবাসায়
পরস্পর জানাজানি
সেখানেই অবগাহন
দুঃখের মাঝে সুখ যে আনি ।

পেতেই ছিল দুই করতল
শূন্য হলাম দিয়ে
সাতপাকে বাজল সানাই
সুখী তার সিঁদুর নিয়ে ।

পলাশ পোড়েল

( হাওড়া, পশ্চিমবঙ্গ,ভারত)

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.