নতুন দিনের আশায়

প্রতিদিন সাতসকালে ভোরে কিরণ হাসুক
নববর্ষের আগমনে শান্তি বিলিয়ে আসুক।
উৎসবের দিনগুলি তাই নতুনভাবে সাজুক
মন্দিরে ও-ই উলুধ্বনি মঙ্গলঘন্টা বাজুক।
বিগত দিনে গ্লানিবোধ সবার থেকে মুছুক
নতুন সালে শুভক্ষণে নতুনভাবে আসুক।
নিত্যদিনের স্বাধীনতা পাখিরা আজ উড়ুক
আমাদের এই মাতৃভূমি স্বাধীনতায় আসুক।
নিপীড়ন-জীর্ণ গুলো ধুলোয় যেয়ে মিশুক
নববর্ষ নতুন ভাবে শান্তি-সুখে হাসুক।
.

.

নবরূপ আঙিনায় পৃথিবী

সাতসকালে পাখিরা যখন গান গায়,
ঠিক তক্ষুনি ফোটে উঠে সূর্যকিরণ-
ক্লান্তি-জীর্ণতা অশুভ গুলো মুছে যায়
পাল্টে দেয় নবরূপ প্রকৃতির আবরণ।
শুভদৃষ্টি তাকিয়ে মূহুর্তে স্বপ্নের হাতছানি
সন্ধিরূপ মিলাতে চায় বাস্তব সম্ভাবনা-
দ্বেষ-বিচ্ছেদ গ্লানি ধুয়েমুছে পরিস্কার;
এবছরে নবসৃষ্টি পৃথিবীর আঙিনায়।
ছড়িয়ে-ছিটিয়ে নবনীতায় শুভক্ষণে-
ফুলে সুবাসিত গন্ধ বিলয় মাধবী ,
তৃষ্ণা মিটাতে চায় নতুন ক্ষুধার্ত গুলো নবরূপ আঙিনায় সাজিয়েগুছিয়ে পৃথিবী।
.

.

সূর্যের শুভ সূচনা

এতদিনে কষ্টে ছিলাম –
নিপীড়নের মধ্যেও কাটাতে হয়েছে রাত,
সুখ নেই, শান্তি নেই, যেখানে তুমি নেই
মনেহয় কূলভাঙা সেও বরর্বাত ।
তুমি এসেছো বলেই তাকিয়ে রয় প্রকৃতি
প্রভাত পাখিরাও গায় গান উল্লাসে-
ফুলে ফুলে সুগন্ধি ঘ্রাণ ভাসে বাতাসে
পূর্বদিক সূর্যকিরণ সেও হাসে আকাশে।
চারিদিক শুভ-আনন্দ উল্লাসে মুখরিত
নিজেকে একমুহূর্ত সামলাতে পারিনা আর
তোমার আগমনে হাসি-গানে দিনগুলি -পূর্বদিক দৈনন্দিন উঠুক সূর্য বারবার ।।

.

.

গুণকীর্তন

প্রকৃতির ভিতরে আজো-
কৃতিত্বে ডাক দেয় বাংলায়,
বিজয়-স্বাধীনতা চিরন্তরে –
ভাবতে থাকে মুক্তির চেতনায়।
আজো কৃতিত্বের গুণকীর্তন,
ভুলেনি বাঙালি- তোমাদের অবদান
নক্ষত্রের প্রদীপ্ত সলিতা যেন তা
দিয়েছ তাঁর প্রমাণ।
দেশপ্রেম তোমার ঘনিষ্ঠতায়-
দ্যাখ মাতৃত্বের বাংলাভাষায়,
প্রকৃতির বিশুদ্ধ বায়ুতায়
অক্ষয় তোমাদের পরিচয়।।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.