আজ ৭এপ্রিল থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত পালেরমোকে রেড জোনে স্থানান্তর করা হয়েছে, মুসুমেসি অধ্যাদেশে স্বাক্ষর করেছেন; ষষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত স্কুল খোলা থাকবে, রয়েছে অনেক বিধি-নিষেধ।

ইতালি II সম্পাদনা ডেস্ক:

পালেরমোকে অফিসিয়ালি রেড জোনে স্থানান্তর করা হয়েছে। পালেরমোর মেয়রের পক্ষ থেকে অনুরোধ, শহরটিতে মহামারী সম্পর্কিত হালনাগাদ তথ্যসহ সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে সিসিলি অঞ্চলের সভাপতি নেলো মুসুমেসি একটি আদেশ জারি করেছেন, যা আজ থেকে কার্যকর হচ্ছে এবং আগামী 14 এপ্রিল পর্যন্ত অব‍্যাহত থাকবে।

অনেকেই এ সিদ্ধান্তকে একটি বেদনাদায়ক সিদ্ধান্ত বলে দাবি করছেন। হাসপাতালগুলিতে ভর্তি রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। বর্তমান “কমলা জোন” এর চেয়ে অধিকতর বিধিনিষেধ প্রয়োগ করে, পালেরমো অঞ্চলে কোভিড জরুরি অবস্থা চালু করার জন্য পালেরমোর মেয়র অনুরোধ করলে এ সিদ্ধান্তটি গৃহীত হয়।

এ ব‍্যাপারে মেয়র লেওলুকা অরল্যান্দো তার বক্তব্যে বলেন,”দুর্ভাগ্যক্রমে পালেরমোতে অত্যন্ত উদ্বেগজনক পরিস্থিতি রয়েছে এবং নতুন সংক্রমিত ব্যক্তিদের ক্রমাগত বৃদ্ধির পরিস্থিতি রেড জোনের প্রয়োজনীয়তা নির্ধারণ করে “।

জরুরি অবস্থা হাসপাতালে:
পালেরমোতে হঠাৎ করে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সেরভেল্লো, তের্মিনি ইমেরেসে এবং পার্তিনিকো হাসপাতালের জরুরী বিভাগগুলোতে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি কোভিড আক্রান্ত রোগীর আগমণ ঘটছে। ফলে হাসপাতালগুলোত বেড সংকট দেখা দিয়েছে।

আজ বুধবার থেকে যেসব বিধি-নিষেধ রয়েছে:
“কর্মস্থল, স্বাস্থ্যগত সমস‍্যা কিংবা অতি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের হওয়া নিষেধ। অতএব, স্পষ্টতই নিজের অঞ্চল ছেড়ে অন‍্য অঞ্চলে যাওয়ায় নিষেধ রয়েছে। হাঁটার অনুমতি কেবল বাড়ির কাছেই রয়েছে। পৌর অঞ্চলের অভ্যন্তরের ট্রানজিট অর্থাৎ কারও বাড়িতে বা নিজ বাসস্থানে ফিরে যাওয়ার অনুমতি রয়েছে; তবে দ্বিতীয় বাড়িতে (অ-প্রধান বাড়িগুলিতে) প্রবেশ এবং প্রস্থান নিষিদ্ধ।

শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান:
রাষ্ট্রপতি মুসুমেসি স্বাক্ষরিত আদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে “লাল অঞ্চলগুলির জন্য প্রদত্ত জাতীয় বিধানগুলোই পালেরমো পৌরসভায় প্রয়োগ করা হবে। সুতরাং, স্কুল এবং পাঠদান কার্যক্রম কেবলমাত্র ষষ্ঠ শ্রেণি (prima media) পর্যন্ত খোলা থাকবে। তাই নিডো, প্রাথমিক এবং জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয়গুলো খোলা থাকবে। বাকি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বাসায় থেকে অনলাইনে ক্লাশ করবেন।

বার, রেস্তোরা ও দোকান:
বন্ধ থাকবে জুতা ও পোশাকের দোকানগুলো (শিশুদের ছাড়া) এবং শপিং সেন্টার। খোলা থাকবে নিউজস্ট্যান্ড, নিত‍্যপ্রয়োজনীয় খাবারের দোকান (আলিমেন্টারী)সহ অন্যান্য মৌলিক প্রয়োজনীয় দোকানগুলো, ফার্মেসী, তামাকের দোকান, বৈদ্যুতিন পণ্য এবং লাইব্রেরী। বার ও রেস্তোঁরাগুলিতে টেকওয়ে এবং হোম ডেলিভারি চালু থাকবে কেবলমাত্র সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত।

অন‍্যান‍্য কার্যক্রম:
বন্ধ থাকবে বাজার, হেয়ারড্রেসার বা নাপিত, সিনেমা, থিয়েটার, জিম এবং সুইমিং পুল, যা বিগত কয়েক মাস ধরে বন্ধ রয়েছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.