আর্লি-স্টার ডেস্ক:
বাংলাদেশে বিদেশ ফেরত যাত্রীদের জন্য কোভিড-১৯ ‘নেগেটিভ’ সনদ আবার বাধ্যতামূলক করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি এড়াতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশে যাওয়ার আগে সব যাত্রীকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করিয়ে ফলাফল‘নেগেটিভ’ এলে বিমানবন্দরে সেই মেডিকেল সনদ দেখিয়ে যাত্রীরা বাংলাদেশে যাওয়ার অনুমতি পাবেন বলে বেবিচকের সদস্য (ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশনস) গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী মো. জিয়াউল কবীর স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে

শনিবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে
বেবিচকের ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশনস বিভাগের এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে। ৫ ডিসেম্বর শনিবার থেকে যুক্তরাজ‍্য, সিঙ্গাপুর, কাতার, মালয়েশিয়া, চীন, তুরস্ক, বাহরাইন, সৌদি আরব, কুয়েত, মালদ্বীপ, ওমান, শ্রীলঙ্কা, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফ্লাইটের ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে। ফলে দেশি-বিদেশি কোনো এয়ারলাইন্স কোভিড-১৯ ‘নেগেটিভ’ সনদ ছাড়া কোনো যাত্রীকে বাংলাদেশে আনতে পারবে না।

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপসহ অনেক দেশেই বাংলাদেশ থেকে সরাসরি ফ্লাইট নেই। তাই সিঙ্গাপুর, তুরস্ক, দুবাই, আবুধাবি, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্যে ট্রানজিট হয়ে যাত্রীরা এসব দেশে যাওয়া-আসা করেন। তাই ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান‍্য দেশের ফ্লাইটের ক্ষেত্রেও এ শর্ত প্রযোজ‍্য হবে।

বিমানবন্দরে বিদেশ ফেরত প্রত‍‍্যেক যাত্রীর তাপমাত্রা পরীক্ষাসহ মেডিকেল স্ক্রিনিং করা হবে। কারও মধ্যে করোনাভাইরাসের লক্ষণ-উপসর্গ দেখা গেলে কোভিড-১৯ ‘নেগেটিভ’ সনদ থাকলেও তাকে চিকিৎসা দেওয়ার লক্ষ‍্যে সরাসরি নির্ধারিত হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষা করা হবে ও আইসোলেশন সেন্টারে নেওয়া হবে এবং যাদের মধ্যে উপসর্গ দেখা যাবে না, তাদের বাড়ি ফিরে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে বলে জানানো হয়েছে।

বিএমইটি কার্ডের অধিকারী বাংলাদেশি শ্রমিকরা যে দেশ থেকে আসবেন, সে দেশের পিসিআর ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানো সম্ভব না হলে, অ্যান্টিজেন বা অন্য কোনো গ্রহণযোগ্য পরীক্ষার সনদ নিয়ে দেশে যাওয়ার সুযোগ পাবেন বলেও সেখানে জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশে অবস্থানরত কূটনৈতিক মিশনগুলোর কূটনীতিক এবং তাদের পরিবারের সদস্যদেরকেও যাত্রার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর ল্যাবে করা করোনাভাইরাস পরীক্ষার সনদ থাকতে হবে।

বিনিয়োগকারী কিংবা বিদেশি উদ্যোক্তাদেরকেও বাংলাদেশে যেতে হলে কোভিড-১৯ ‘নেগেটিভ’ সনদ সংগ্রহ করতে হবে। বিমানবন্দরে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় ভাইরাসের উপসর্গ দেখা গেলে তাদেরকেও পরবর্তী পরীক্ষা এবং চিকিৎসার জন্য আইসোলেশন সেন্টার ও হাসপাতালে পাঠানো হবে, আর উপসর্গ দেখা না গেলে এবং বাংলাদেশে ১৪ দিনের কম সময় অবস্থান করলে, তাদেরকে বাংলাদেশ ত্যাগ করার অনুমতি দেওয়া হবে

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত কূটনৈতিক ফ্লাইট, রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে ত্রাণ, প্রত্যাবাসন, মানবিক সাহায্য, বাংলাদেশি নাগরিকদের ফেরত আনার ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে না।

সূত্র: বিডি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.