বাংলায় বলি | জেবুন্নেছা জেবু
বাংলায় বলি ভাষা নিয়ে ভাবি একুশ আসে
বছরে একবার;
দিন এলেই উপলক্ষ বানিয়ে নেচে গেয়ে
করি বছর পার!
কবে হারিয়ে গেছে সেই চেতনা বোধ ভিন্ন ভিন্ন
ভাষায় বুঝি নাই;
বাজনা বাজিয়ে ফুলের ব্যানারে করি কিছু
শ্রদ্ধা নিবেদন বাংলায়!

প্রহসনে পড়ে থাকা হাস্যকর স্বরনে জেগে
উঠা ভাষার প্রেম;
ভাষারা কাঁদে নীরবে প্রশ্ন করে অবহেলায়
পড়ে থাকা শহীদ মিনারের ফ্রেম!
কবে একুশের চেতনায় দিয়েছি শ্রদ্ধা প্রতিটি এয়ারপোর্ট বন্দরে?
করি কি ধারণ ভালোবেসে বাংলাকে মনের অন্দরে?

স্বপ্নেরা অসৎ কর্মে লুটপাট
পারিনি আশা পূরণে সততার বাঙালি হতে;
জানালায় উকি দিয়ে দেখি ডাকাতি হয়েছে
সব হারিয়েছে ভিন্নতে!
ফোটে হরেক ফুল মালা দিয়ে ভোরে জানাবো শ্রদ্ধা বিনয়;
ফ্যাশন বাহারী ব্যানারে পত্রিকার শিরোনাম হবো শুভ্র আলোয় ।

আমার গৃহে অন্ন নেই পেটে ক্ষুধা হাহাকার;
নেই আশ্রয় আমাদের সন্তান, ভাই, স্বজনরা লজ্জিত বেকার!
নীরবে পড়ে থাকা অসংখ্য ভাবনার দুয়ার;
আমি গরীব বাঙালি আছে সংগ্রামী অহংকার!

সূর্য ডোবে সূর্য উঠে কতো বছর হলো পার … হয়তো কখনো হবে সূর্যোদয় নবীনের।
আমার আঁধারে ভীষন ভয় তবুও পাই না আলো;
যুগে যুগে অন্তরে অন্তরে বিবেকে আবেগে মরি তবুও বাংলাকে বেসেছি ভালো!

আজো সেই পুরোনোতে অধিকার খুঁজি অথচ কোন অধিকার নাই;
আমাদের ধ্যান ধারণার মূল্য কোথায় পাই!
আমার বাংলা আমার ভাষা- বলতে বলতে আমি ক্লান্ত;
বেলা শেষে দেখি কিছুই নেই আমার-
আমি শূন্য, আমি সর্বশান্ত!

তাই বড়ো প্রয়োজনে, ভিন্ন আয়োজনে খুঁজতে হয় জীবন সফলতা;
সংগ্রাম করে যাই যদি ভবিষৎ বলে কিছু হয় প্রাপ্যতা!
ফিরিবার পথ নাই ভিন্ন ভাষা ভিন্ন দেশের প্রেমে আমি হই বিমোহিত;
আমার ২১, আমার ভাষা, চেতনা আমারই থাক
আমি নই ব্যাথিত।

আন্তর্জাতিক ভাষার অহংকারে আমি হই ধন্য
একুশ তুমি আমার গর্ব বাংলা ভাষারই জন্য!
সালাম, রফিক, জাব্বার গর্বিত শহীদেরা আমার প্রাণের ভাই;
আমি আজন্ম শহীদদের বিনম্র শ্রদ্ধা জানাই!
দেবার মতো কিছুই নাই বাংলা আমার অহংকার;
আমি স্বপ্ন দেখি বঙ্গবন্ধুর চোখে ..জয় হউক বাংলার!

কবি জেবুন্নেসা জেবু
চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.