ঝরঝর ঝরছে বারি,
আকাশে মেঘের মেলা।
বাহিরে যাওয়া বারণ আছে,
ঘরে বসে কাটাবো বেলা।

দাওয়ায় বসে পরাণ গাজী,
করছে হায় হায়।
রুজির পথ বন্ধ হলো,
সংসার চালানো দায়।

ভাঙা চালের ফুটো দিয়ে,
পড়ছে বৃষ্টির পানি।
বাচ্চাগুলো কোলে নিয়ে,
জপছে আল্লার নামখানি।

সদাই পাতাই নেইতো ঘরে,
হবে কি যে রান্না।
ক্ষুদার জ্বালায় শিশুগুলো
করছে শুধু কান্না।

শাকপাত দিয়ে কোনরকম,
পাকায় একটু খিচুড়ি।
তাই দিয়ে ঘরগোষ্টী
খায় পেট ভরি।

বৃষ্টির দিনে বড়লোকের,
খুশির সীমা নাই।
অভাবী অনাহারী মানুষেরা,
পায় যে কোথায় ঠাঁই।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.