আর্লি-স্টার ডেস্ক:
বাংলাদেশের সৈয়দপুর বিমানবন্দরসহ চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা এই তিন সমুদ্র বন্দর ব্যবহার করতে পারবে ভূটান। তাছাড়াও ভূটান বাংলাদেশে শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধা পাচ্ছে। ভূটানকে এই প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশকে ভূটানের দেয়া স্বীকৃতির বর্ষপূর্তিতে প্রধানমন্ত্রী এই প্রতিশ্রুতি দেন।

প্রায় নয়মাস যুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ছয়ই ডিসেম্বর প্রথম দেশ হিসাবে স্বাধীন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয় ভূটান, যা বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি স্মরণীয় দিন হিসেবে মর্যদাসীন।

তাই শুভাকাঙ্খী সেই বন্ধুকে পরবর্তীতে বাংলাদেশ নানাভাবে প্রতিদান দেয়ার চেষ্টা করেছে। গত এক দশকে দুই বন্ধু দেশের সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হয়েছে। এদের মধ্যে অনেকগুলো চুক্তি স্বাক্ষতির হয়েছে এবং সহযোগিতামূলক অনেকগুলো পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনাও চলছে।

আজ এই বিশেষ দিনে ভূটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে এক টেলিকনফারেন্সের মাধ‍‍্যমে দুই দেশের বাণিজ্য সচিব অনেকগুলো চুক্তিতে সই করেন।

বিশ্বের অন্য কোন দেশের সাথে এটাই বাংলাদেশের প্রথম অগ্রাধিকার বাণিজ্য চুক্তি বা পিটিএ। ভূটানের ৩৪টি পণ্য বাংলাদেশে এবং বাংলাদেশের ১০০টি পণ্য ভুটানে শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে।

উল্লেখ‍্য, ভূটান থেকে সবজি ও ফলমূল, খনিজ দ্রব্য, নির্মাণ সামগ্রী, বোল্ডার পাথর, চুনাপাথর, কয়লা, পাল্প, রাসায়নিক আমদানি করা হয় বাংলাদেশে এবং বাংলাদেশ থেকে তৈরি পোশাক, আসবাব, খাদ্য সামগ্রী, ওষুধ, প্লাস্টিক, বৈদ্যুতিক পণ্য রপ্তানি হয় ভূটানে।

এবিষয়ে, বাংলাদেশের বাণিজ্য সচিব সাংবাদিকদের বলেছেন, বাংলাদেশি পণ্যের অন্যতম গন্তব্যস্থল না হলেও ভূটানকে দিয়েই অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি শুরু করেছে বাংলাদেশ। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য দেশের সঙ্গেও বাংলাদেশের এমন চুক্তি হতে পারে।

সূত্র: বিবিসি

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.