উপকরণঃ
১)রসুন আড়াইশ গ্রাম
২) লেবুর রস দুই কাপ
৩) শুকনো মরিচ আট টি
৪)পাঁচ ফোড়ন এক চামচ
৫)জিরা এক চামচ
৬)শরষে এক চামচ
৭)কালোজিরা এক চামচ
৮) হলুদ এক চামচ
৮)চিনি এক চামচ
১০)শরষে তেল দুই কাপ
১২) লবণ স্বাদমতো

এইসব গুলো উপকরণের গুণাগুণ এর কথা আমরা সবাই কমবেশি জানি। আর এই আচার টা ডায়াবেটিস উচ্চরক্তচাপ যাদের আছে, তাদের জন্য খুব উপকারী, খেতেও খুব সুস্বাদু।

আমি যেভাবে আচার টা তৈরী করেছি!:

রসুন গুলো ভালো ভাবে খোসা ছাড়িয়ে শুকনো খোলায় টেলে নিয়েছি। লেবুর রস এক চামচ হলুদ লবণ দিয়ে একটা বলক দিয়েছি। বাকি সব শুকনো উপকরণ গুলো ভেজে গুড়ো করে নিয়েছি।
শরষে তেল টা কালো জিরা চারটি শুকনো মরিচ দিয়ে ফোড়ন দিয়ে ঠান্ডা করে নিয়েছি।
একটা বয়মে এক এক করে সব মিশিয়ে ভালো করে নেড়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে মাজাদার লেবুরসুনের আচার।

বিঃদ্রঃ
চিনি ও লবণ টা আমি এক্টু টেলে নিয়েছি, যেহেতু আমি এটা চুলায় রান্না করিনি তাই সবকিছুই ভেজে নিয়েছি ফ্রিজ ছাড়াই ছয় মাস ঘরে ভালো থাকবে। এই আচারে আমি কোনো প্রকার প্রিজারভেটিভ ব্যবহার কিরিনি। মাঝে মাঝে রোদে দিতে হবে। আপনারা চাইলে ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন।

জোসনা খানম
কবি ও রন্ধন শিল্পী
রাজশাহী

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.