মোহাম্মদ আদনান মামুন, নিজস্ব প্রতিবেদক-
গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর এলাকার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মাওনা চৌরাস্তায় লকডাউনে নির্দেশনা অমান্যকারীদের সতর্কতা হিসেবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সামান্য দূরে দাঁড়িয়ে তা দেখছিলেন পারভেজ (২২) নামের এক যুবক।
ওই যুবকের তার কাছে বাড়ি থেকে বের হওয়ার কারণ জানতে চান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। ‘লকডাউন কেমন হচ্ছে! তা দেখতে এসেছেন’ বলে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে জানায় যুবক পারভেজ।
পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাকে বিনা কারণে ঘর থেকে বের হওয়ায় জরিমানা করেন। তার পকেটে ৪০ টাকা আছে বলে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে জানায় ওই যুবক। তাকে সতর্ক করতে ৪০ টাকা জরিমানা আদায় করে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। 
সাগর (২৫) নামের অপর এক যুবক ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম দেখতে এসে জরিমানা গুনেছেন। কিন্তু পকেটে ৭০ টাকার বেশি না পাওয়ায় তাকেও ৭০ টাকা জরিমানা আদায় করে ছেড়ে দেওয়া হয়।
মঙ্গলবার (৬ জুলাই) দুপুর ১২টায় শ্রীপুর পৌর এলাকার মাওনা চৌরাস্তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন। এ সময় মাস্ক না পরায় পথচারীদের সচেতন করতে জরিমানা করেন তিনি।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, করোনার সংক্রমণ রোধে সরকারের ঘোষিত লকডাউনে সাধারণ মানুষকে ঘরে রাখতে উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় গিয়ে সাধারণ মানুষকে বোঝানো হচ্ছে। তবুও যারা বিনা কারণে বাইরে ঘোরাঘুরি করছেন তাদের সতর্কতাস্বরূপ জরিমানা করা হচ্ছে।
তিনি আরও বলেন, লকডাউনে নির্দেশনা অমান্য করে বিক্রয় কেন্দ্র খোলা রাখায় শ্রীপুরের মাওনা চৌরাস্তা সিঙ্গার ইলেকট্রনিকস ও বেস্ট ইলেকট্রনিকসকে চার হাজার টাকাসহ ১৩টি মামলায় ৫ হাজার ২১০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট যাদব সরকার ও মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.