নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর:
বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নাটোরের বাগাতিপাড়ার মা হেনা বেগম (৩৯) নিহত হয়েছেন।এসময় চালক বড় সন্তান রুদ্র (১৭)গুরুত্বর আহত হয়েছেন। তবে অপর ছোট শিশু সন্তান রিয়াদ (৫)ছিটকে গিয়েও অলৌকিকভাবে অক্ষত রয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে নাটোরের পিটিআই এলাকায় নাটোর-রাজশাহী মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত রুদ্রকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত হেনা বেগম বাগাতিপাড়া উপজেলার সোনাপুর হিজলি পাবনা পাড়া গ্রামের রুহুল আমিনের স্ত্রী। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়,দুই ছেলেকে সাথে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে বাগাতিপাড়া থেকে মা হেনা বেগম ছোট ছেলে রিয়াদের চিকিৎসার জন্য নাটোর সদরে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে নাটোর পিটিআই এলাকায় নাটোর-রাজশাহী মহাসড়ক পাড় হওয়ার সময় একটি দ্রুতগামী বাস তাদের ধাক্কা দেয়।

এসময় মা হেনা বেগম ও বড় ছেলে রুদ্র গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মা হেনা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় হেনার বড় সন্তান রুদ্রকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।এদিকে দূর্ঘটনার সময় মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে মাটিতে পড়ে যায় শিশু রিয়াদ। তবে শিশুটি অলৌকিকভাবে অক্ষত রয়েছে বলে জানা গেছে। বাগাতিপাড়া মডেল থানার ওসি নাজমুল হক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.