ইকবাল হোসেন তালুকদার, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি:
বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসে এক উল্লেখযোগ‍্য অধ‍্যায়, নবীগঞ্জ মুক্ত দিবস আজ (৬ ডিসেম্বর)। এই দিন পূর্বাকাশের সূর্যোদয়ের সাথে সাথে মুক্তিযোদ্ধারা পাক বাহিনীদের হটিয়ে দিয়ে মুক্ত করেছিল নবীগঞ্জ শহরকে।

৩দিনের সম্মুখ যুদ্ধের পর সেদিন সূর্যোদয়ের কিছুক্ষণ আগে নবীগঞ্জ থানা সদর হতে পাক হানাদার বাহিনীকে সম্পূর্ণরূপে বিতাড়িত করে মুহুর্মুহু গুলি ও জয় বাংলা শ্লোগানের মধ্য দিয়ে বীরদর্পে এগিয়ে আসেন হাজারো মুক্তিকামী জনতা। তখন মাহবুবুর রব সাদীর নেতৃত্বে থানা ভবনে উত্তোলন করা হয়েছিল বাংলাদেশের পতাকা। পরে স্থানীয় ডাকবাংলো সম্মুখে হাজারো জনতার আনন্দে উদ্বেলিত ভালবাসায় সিক্ত মাহবুবুর রব সাদী আবেগজড়িত কণ্ঠে স্বাধীনতার মূল উদ্দেশ্য বর্ণনা করে ওই দিন বিকালে বাহিনীসহ সিলেট রওয়ানা দেন।

নবীগঞ্জ মুক্ত হওয়ার আগে থেকেই মুক্তিযোদ্ধারা বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেন। বিভিন্ন সময় পাক বাহিনীর উপর গেরিলা হামলা চালিয়ে তাদের ভীত সন্ত্রস্ত করে রাখেন মুক্তি-সেনারা। কৌশলগত কারণে নবীগঞ্জ গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় মুক্তিযোদ্ধারা নবীগঞ্জ থানা দখলের সিদ্ধান্ত নেন। মুক্তিযোদ্ধারা পাক বাহিনীর অন্যতম ক্যাম্প নবীগঞ্জ থানাকে লক্ষ্য করে এর তিনদিকে অবস্থান নেন। ৩ ডিসেম্বর রাত থেকে উভয় দলের মধ‍্যে ক্ষণে ক্ষণে গুলি ছুঁড়াছুঁড়ি চলে। আত্মরক্ষার জন‍্য কিংবা কৌশলগত কারণে কখনও পিছু হটা, আবার কখনও আক্রমণ চালিয়ে পাক বাহিনীকে নাস্তানাবুদ করতে থাকেন মুক্তিযোদ্ধারা।

ঐ সময় দেশব‍্যাপী পাক বাহিনীর অবস্থান খারাপ হওয়ায় নবীগঞ্জেও তাদের খাদ্য এবং রসদ সরবরাহ কমে যায়। অন্যদিকে মুক্তিবাহিনী একেক সময়ে একেক দিক দিয়ে আক্রমণ চালাতে থাকেন। ৪ ডিসেম্বর রাতে থানা ভবনের উত্তরে রাজনগর গ্রামের কাছ থেকে মুক্তিযোদ্ধা রশিদ বাহিনীর পক্ষ থেকে পাক বাহিনীর উপর প্রচণ্ড আক্রমণ চলে। এ যুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর কিশোর মুক্তিযোদ্ধা ধ্রুব ৪ ডিসেম্বর শহীদ হন।

এরপর ৫ ডিসেম্বর রাতে মুক্তিযোদ্ধারা চরগাঁও ও রাজাবাদ গ্রামের মধ্যবর্তী শাখা বরাক নদীর দক্ষিণ পাড়ে অবস্থান নেন। প্রায় ৩ ঘণ্টা ধরে প্রচণ্ড যুদ্ধ চলার পর শক্র বাহিনী পালিয়ে যায়।

১৯৭১ সালের এই দিনে (৬ ডিসেম্বর) ভোর রাতে পাক বাহিনীর পক্ষ থেকে কোন বাধা না আসায় মুক্তিবাহিনী বীরদর্পে জয়বাংলা শ্লোগানের মধ্য দিয়ে থানা প্রাঙ্গণে প্রবেশ করেন এবং বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করে নবীগঞ্জ উপজেলাকে মুক্ত ঘোষণা করেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.