অভিবাসীদের ঠেকাতে সীমান্তে সেনা মোতায়েন করেছে বুলগেরিয়া
“অভিবাসন চাপ” মোকাবেলায় গ্রীস এবং তুরস্ক সীমান্তে ৪০০ থেকে ৭০০ সৈন্য মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বুলগেরিয়া সরকার।

অভিবাসী।। শাহারিয়া রহমান, প্রদায়ক :

পূর্ব ইউরোপের দেশগুলোর সীমান্তে ব্যাপক সামরিকীকরণ চলছে। পোল্যান্ডের পর এবার বুলগেরিয়াও গ্রীস ও তুরস্কের সীমান্তে চারশ থেকে সাতশ সৈন্য পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে।

বুলগেরিয়ার দক্ষিণে বুলগেরিয়ান-আমেরিকান বাহিনীর যৌথ মহড়া চলাকালীন একটি অনুষ্ঠানে দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী জর্জি পানায়োটভ বলেন, “সীমান্তে প্রাচীর নির্মাণ কাজ তদারকি এবং প্রয়োজনে বর্ডার পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীকে সহায়তার মাধ্যমে একটি সুরক্ষা মিশন নিশ্চিত করবে সৈন্যরা।”

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায় যে, গত এক সপ্তাহ ধরে গ্রেপ্তারকৃত অবৈধ আফগানদের সংখ্যা বাড়ার পর এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে যে, “বুলগেরিয়া সীমান্তে চাপ বৃদ্ধি পাচ্ছে।”

সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির অন্যান্য রাজনৈতিক পদক্ষেপের পাশাপাশি সামরিক বাহিনীকে সীমান্তে ব্যাপক শক্তিশালী করা হয়েছে। ২০১৩-১৪ সালের মধ্যে দেশটির দক্ষিণ-পূর্বে তুরস্কের সাথে থাকা সীমান্তে ২৫৯ কিলোমিটারের কাঁটাতারের বেড়া তৈরি করেছে। তবে নজরদারির অভাবে কিছু অভিবাসী বুলগেরিয়া প্রবেশ করে ট্রানজিট করতে সক্ষম হয়েছিল।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *