ইতালি-ফ্রান্স সীমান্তে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে প্রাণ হারায় এক বাংলাদেশী তরুণ
ইতালি থেকে ট্রেনের ছাদে চেপে ফ্রান্স সীমান্তে যাওয়ার সময় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন এক বাংলাদেশী তরুণ। এভাবে সীমান্ত পাড়ি দিতে গিয়ে গত কয়েক বছরে ২০ জন মারা গেছেন।

ইতালি।। শাহারিয়া রহমান, প্রদায়ক :

গত রবিবার ইতালির পেলিয়া অঞ্চলের নিকটে ভেন্তিমিগ্লিয়াতে ট্রেনের ছাদে চেপে ফ্রান্স সীমান্তে যাওয়ার সময় এক ১৭ বছর বয়সী বাংলাদেশী তরুণের মৃত্যু হয়। একটি সুড়ঙ্গের ভেতর দিয়ে ট্রেনটি যখন যাচ্ছিল, তখনই ঘটনাটি ঘটে।

সীমান্তের নিকটবর্তী শেষ ইতালিয়ান স্টেশন থেকে যখন ট্রেনটি ছাড়ে, তখনই ট্রেনের ছাদে লাফ দিয়ে উঠে সেই তরুণ। ট্রেনের চালক ব্রেক কষে প্রাণপণ চেষ্টা করেন তার প্রাণ বাঁচানোর জন্য, কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি।

উদ্ধারকর্মীরা তরুণের মৃতদেহ তল্লাশি করে তার পকেট থেকে একটি চিরকুট খুঁজে পায়। এতে তার বয়স এবং পরিচয় লেখা ছিল।পাশাপাশি তার পকেট থেকে স্থানীয় থানায় হাজিরা দেয়ার নির্দেশের কাগজ পাওয়া যায়।

স্থানীয় দমকলকর্মীরা মৃত যুবকের দেহ উদ্ধারকালীন সময়ে কয়েক ঘণ্টার জন্য রেল চলাচল বন্ধ থাকে। স্থানীয় পুলিশ, উদ্ধারকর্মী ও ভেন্তিমিগ্লিয়ার মেয়র গায়েতানো স্কুলিনো ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।

এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন মেয়র স্কুলিনো। ইতালিয়ান রেল কর্তৃপক্ষকে ‘রেল যাতায়াতের দুই দিকেই উন্নত নজরদারি ব্যবস্থা গ্রহণের’ জন্য অনুরোধ জানান তিনি।

উল্লেখ্য ভেন্তিমিগ্লিয়া ও কান শহরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী “কোল দে মর্ট” সুড়ঙ্গকে স্থানীয়রা ধারাবাহিক দুর্ঘটনার কারণে ‘ডেথ পাস’ বা ‘মৃত্যু পথ’ নামে অভিহিত করেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *