বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী শুভঙ্কর সিংহের দশটি ছবি এবং সুদীপ্ত অধিকারীর ত্রিশটিসহ মোট চল্লিশটি ছবি নিয়ে সম্প্রতি আসানসোলের বিদ্যাসাগর আর্ট গ্যালারিতে অনুষ্ঠিত হলো তিনদিনব‍্যাপী ট্রিপটিচ চিত্রপ্রদর্শনী।

শিল্প ও সাহিত‍্য || সিদ্ধার্থ সিংহ, কলকাতা:

মেরিন ইঞ্জিনিয়ারের মতো নিশ্চিত চাকরি ছেড়ে দিয়ে আঁকাআঁকিতে অনায়াসে মনপ্রাণ সঁপে দেওয়া এবং ‘গড : এনসিয়েন্ট এলিয়েন অর আ মিথ’ নামক সাড়া জাগানো বইয়ের লেখক, যিনি লিখেছেন একের পর এক চিত্রনাট্য, সেই বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী শুভঙ্কর সিংহের দশটি ছবি স্থান পায় এই প্রদর্শনীতে।

অন‍্যদিকে, যিনি শুধুমাত্র ছবিকে ভালবেসে দীর্ঘ বিশ বছরের পিডিলাইটের চাকরি জীবন থেকে অব‍্যাহতি নিয়ে পুরোপুরি আঁকার জগতে পা রাখেন, সেই সুদীপ্ত অধিকারীর ত্রিশটি ছবিসহ মোট চল্লিশটি ছবি স্থান পায় এই ট্রিপটিচ চিত্রপ্রদর্শনী।

অ্যাবস্ট্রাক এবং ফাইন আর্টসের মিশেলে শুভঙ্কর সিংহের নিবেদনে ছিল মোট দশটি ছবি। উল্লেখযোগ্য ছবিগুলির মধ্যে ছিল, ট্রাপড উইথ ইন ইনফাইনাইট, দ্য ফেমাস ফ্লাইট অফ রিবার্থ, ইম্প্রেশন, ক্রুসিফিকেশন অব ট্রুথ, এ ভ্যাগরেন্ট গডেস-সহ চোখ ধাঁধানো ছবিগুলো।

অপরদিকে, মাইথোলজি আর প্রকৃতির সংমিশ্রণ ফুটে উঠে সুদীপ্ত অধিকারীর ছোট ছোট ত্রিশটি ছবিতেই। যার মধ্যে ধরা পড়েছে ঐশ্বরিক শক্তির বিচ্ছুরণ। তাঁর মেডুসা, দুর্গা, উইশ ট্রি, হ্যামার অব থর-সহ প্রত‍্যেকটা ছবি দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে।
চিত্রশিল্পী শুভঙ্কর সিংহ ও সুদীপ্ত অধিকারী। ছবি: সিদ্ধার্থ সিংহ

মূলত ক্যানভাসে অ্যাক্রেলিকে আঁকা ছবিগুলো দেখার জন্য বেলা ২টো থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ছিল দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। শিল্পের প্রতি আসানসোলবাসীর এমন আগ্রহ দেখে দুই শিল্পীই ছিলেন অভিভূত। দু’জনেই জানিয়েছেন, তাঁরা যে এভাবে স্থানীয় দর্শনার্থীদের সাড়া পাবেন, তা কল্পনাও করতে পারেননি।

শুধু সাধারণ মানুষই নন, এই প্রদর্শনী দর্শন করতে এসেছিলেন এলাকার বিশিষ্ট লেখক সুরজিৎ সুলেখাপুত্র, আশিস মুখার্জ্জী, অরুণাংশু আলী চৌধুরী, চিত্রশিল্পী দেবব্রত ঘোষ, পার্থ নাগ, কোহিনূর কবিরাজ, পার্থ সিনহা, রঞ্জন মুখোপাধ্যায়, নীলোৎপল ভট্টাচার্য, জয়ন্ত মুখোপাধ্যায়, অর্ণব ঘোষ এবং অনুপম দাস-সহ অন্যান্য গুণীজনেরা।

এত দিন শুভঙ্কর সিংহ প্রতিষ্ঠিত আর্টভার্স সংস্থার পক্ষ থেকে কলকাতার প্রথম সারির গ্যালারিগুলোতে চিত্র, ভাস্কর্য এবং ফটোগ্রাফি প্রদর্শনীর আয়োজন করা হত। এতে অংশগ্রহন করে আসছেন তরুণ শিল্পীরা। সম্পাদকদের একটি চ্যানেল প্রদর্শনির আগে ছবিগুলি ঝাড়াই-বাছাই করে নিতো।

উল্লেখিত প্রদর্শনীতে সাধারণ আমজনতার অভাবনীয় সাড়া পাওয়ায় শুভঙ্কর সিংহ এবং সুদীপ্ত অধিকারী ঠিক করেছেন, এখন থেকে কেবল আসানসোল নয়, অন্যান্য রাজ্য, এমনকী গ্রাম-গ্রামান্তরেও তাঁরা ছবি নিয়ে ছুটে যাবেন। অতিমারির নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলে পাড়ি জমাবেন বিদেশেও।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *